১০ টি অসম্ভব প্রয়োজনীয় ফেসবুক ট্রিকস

ফেসবুক আমরা প্রতিনিয়ত ব্যবহার করি। স্ট্যাটাস আপডেট, বন্ধুদের প্রোফাইল চেক করা, ছবি ভিডিও আপলোড-ডাউনলোড করা থেকে শুরু করে প্রতিদিন আমাদের সময়ের একটা নির্দিষ্ট অংশ এই ফেসবুক জগতে কাটে। তাছাড়া চ্যাট, গ্রুপিং, ইভেন্টসহ সব কিছুতে লেগেই থাকি প্রতি মুহূর্ত।

ফেসবুক সম্পর্কে আমাদের জ্ঞান অনেক দূর পর্যন্ত। সেহেতু এই ফেসবুক নিয়ে কিছু জানানো আসলে কঠিন। তবে আমি চেষ্টা করেছি আজকের টিউনে কিছু অসম্ভব প্রয়োজনীয় কিন্তু অনেকটা অজানা জিনিস নিয়ে আলোচনা করার। সোশ্যাল নেটওয়ার্কের এই যুগে অসম্ভব কিছু করে দেখানোতে আমরা আগ্রহী। তাহলে আসুন শুরু করি কিছু অজানা ফেসবুক টিপস জানার।

ফেসবুক

অজানা ১০ ফেসবুক ট্রিকসঃ

আমার মনে এই ১০ টি ফেসবুক ট্রিকস আপনাকে নতুনভাবে ফেসবুক অভিজ্ঞতা তৈরিতে সাহায্য করবে।

১) স্ট্যাটাস বিভিন্ন ফন্টে লিখুনঃ

এখন থেকে আপনি একটু ব্যতিক্রম এবং কুল স্ট্যাটাস দিন, যা হয়তো অন্য কেউ দিবে না। কিন্তু কীভাবে? আসলে আমরা ফেসবুকে ডিফল্টভাবে এক ফন্টেই সবসময় স্ট্যাটাস দিয়ে থাকি। কিন্তু আপনি এই ট্রিকস জানলে অন্য অনেক ভালো ফন্টেও স্ট্যাটাস দিতে পারবেন। যা হয়তো অনেকের নজর কাড়বে একটু অন্যভাবে। আর আপনি হয়ে যান কুল ফেসবুক ইউজার।

ফেসবুক ফন্ট চেঞ্জ

সেজন্য আপনাকে এই লিংক থেকে আপনার স্ট্যাটাস কপি করে যেকোনো ভালো ফন্ট চুজ করে আবার ফেসবুকে পেস্ট করে স্ট্যাটাস আপডেট করুন। দেখবেন আপনি কুল, আপনার ফেসবুকও কুল হবে।

২) ফেসুক ইভেন্টকে গুগল ক্যালেন্ডারে সিঙ্ক করুনঃ

বর্তমানে সবথেকে দায়িত্বশীল সেক্রেটারি মনে হয় গুগল ক্যালেন্ডার। এটি উপকার আসলে বলে শেষ করা সম্ভব না। তবে আপনি ফেসবুক ক্যালেন্ডারকে ইভেন্টকেও এই গুগলে ট্রান্সফার করতে পারেন।

আপনাকে যা করতে হবে-

প্রথমে ফেসবুক ইভেন্টে যান, তারপর Upcoming ট্যাব ওপেন করুন, তারপর অপশন থেকে Export Event এ ক্লিক করুন।

ফেসবুক ইভেন্ট ক্যালেন্ডার

এখান থেকে এড্রেস কপি শেষ করে, নিচের গুগল ক্যালেন্ডারের ছবির মতো ট্যাব থেকে Add URL এ ক্লিক করুন।

ব্যস আপনার ফেসবুক ইভেন্ট এখন সব গুগল ক্যালেন্ডারে চলে আসবে।

ফেসবুক টু গুগল

৩) ব্লাঙ্ক কমেন্ট দিয়ে আপনার বন্ধুকে চমকে দিনঃ

আচ্ছা আপনার কোন বন্ধু যদি একটা স্ট্যাটাস দেয়, আর যদি একটা কমেন্ট করেন, তাও যদি ব্লাঙ্ক, কেমন হবে বলুনতো। নিচ্চয় আপনার বন্ধু আপনাকে জিজ্ঞাসা করবে, কারণ কি? অথবা ভাববে তাঁর মনিটরে কোন ঝামেলা, নাকি চোখে। হ্যাঁ সেটাই, এই কাজই করতে পারেন আপনি এখন থেকে।

ফেসবুক ব্লাঙ্ক কমেন্ট

ব্লাঙ্ক কমেন্ট করার জন্য- Alt কী প্রেস করে 0173 লিখুন এবং সব কী ছেড়ে দিয়ে Enter প্রেস করুন। ব্যস হয়ে গেলো ব্লাঙ্ক কমেন্ট, চমকাবে আপনার বন্ধু।

৪) ফেসবুক ট্রাকিং বন্ধ করুন-

আপনি কি জানেন ফেসবুক আপনার প্রতিটি কাজের খবর রাখে। তারা আপনার কর্মপদ্ধতি অনুসারে আপনার সামনে অ্যাড শোঁ করায়। ফেসবুক আপনি ফ্রি ব্যবহার করেন, কিন্তু অ্যাডের মাধ্যমে ফেসবুক মিলিয়ন ডলার ইনকাম করছে দিনকে দিন। সেহেতু এই অস্বস্তি থেকে বাঁচতে আপনি ফেসবুক অ্যাড অ্যাড ট্রাকিং করতে পারেন। এজন্য আপনাকে এই ফায়ারফক্স এবং ক্রোমে অ্যাডঅনস একটিভ রাখলেই হবে। আর ফেসবুক আপনাকে ট্রাক করতে পারবে না।

ফেসবুক ট্রাকিং বন্ধ

৫) আপনার প্রয়োজনীয় ব্যক্তিদের সাথে শুধু চ্যাট করুনঃ

আপনি ফেসবুকে চ্যাট অপশন ওপেন করলে সবাই জেনে যায়। অনেকে নক করা শুরু করে। তাহলে আপনি নির্দিষ্ট কিছু পার্সনের সাথে চ্যাট করতে পারেন। এতে আপনি ঝামেলা মুক্ত হবে।

এজন্য আপনি নিচের চ্যাট অপশন থেকে Advanced Setting থেকে আপনি যাদের সাথে চ্যাট করতে চান, সিলেক্ট করে দিন। দেখবেন আপনি ঝামেলামুক্ত।

৬) ফেসবুক অ্যাড ব্লক করুনঃ

ফেসবুক অ্যাড কি আপনার বিরক্ত করে। আপনি কি অসহ্য হয়ে যান। অযাচিত অ্যাড আপনাকে ঝামেলা করে। তাহলে আপনি এই অ্যাড সম্পূর্ণরুপে ব্লক করতে পারনে। সেজন্য অবশ্য আপনাকে এই গুগল ক্রোম এক্সটেনশনটি ব্যবহার করতে হবে এবং এটি একটিভ রাখলেই আজাচিত ফেসবুক অ্যাড আপনাকে আর ঝামেলা করবে না।

অ্যাড ছাড়া ফেসবুক

৭) প্রতিদিনের ফেসবুক সামারি নিয়ে নিনঃ

আপনি খুবই ফেসবুক এডিক্ট, তাহলে আপনি প্রতিদিনের ফেসবুক সামারি আপনার মেইলে নিতে পারেন। এটা অবশ্য ভালো জিনিস সব সময় কামেক্ট থাকার জন্য। নাটসেল মেইল এই কাজ করে দিতে পারে খুব সহজে। আপনি কি কি ধরণের মেইল চান সিলেক্ট করে দিলেই দিন শেষে একটা সামারি এই অ্যাপ আপনাকে মেইল করে দিবে।

প্রতিদিনের ফেসবুক সামারি

৮) অভার শেয়ার এড়িয়ে যানঃ

অনেক ফেসবুক ইউজার আছে যারা প্রতি ঘটনা ফেসবুকে ভরে ফেলে। তাদের খাওয়া-দাওয়া সহ প্রতি মিনিটের ঘটনা ফেসবুকে শেয়ার করে। এক্ষেত্রে আপনি এটা এড়িয়ে যেতে পারেন। এই ক্ষেত্রে আপনি টাকে ব্লক না করেই তাঁর আপডেট স্ট্যাটাস থেকে মুক্ত হবেন। নিচের ছবি দেখে করুন।

৯) অজনা ম্যাসেজ জেনে নিনঃ

অনেকে হয়তো দেখছেন other নামে ম্যাসেজ অপশনের পাশে একটা মেনু আছে। যারা আপনার বন্ধু না, কিন্তু মিউচুয়াল ফ্রেন্ড তারা ম্যাসেজ করলে অনেক সময় এখানে জমা হয়। তাছাড়া আরও অনেক ম্যাসেজ এখানে আসে, এমনকি স্প্যাম সহ। সেহেতু এটি কখনো এড়িয়ে যাবেন না।

১০) ফেসবুক একাউন্ট ডিলিট করুনঃ

অনেকে ফেসবুক ব্যবহার করতে করতে অতিষ্ঠ হয়ে গেছেন, কিংবা এখন চাচ্ছেন না ফেসবুক আর ব্যবহার করতে। তারা আপনার ফেসবুক একাউন্ট ডিলিট করতে পারেন। ডিএকটিভ করতে পারেন। অনেকে এটা জানে না।

ফেসবুক বন্ধের কারণ দিবেন

কীভাবে করবেন? আপনি Settings > Security > Deactivate your Account এ চলে যাবেন। তারপর ডিএকটিভের কারণ জানতে চাইবে, আপনি যেকোনো একটা কারণ দিয়ে দিবেন, ব্যস হয়ে যাবে। তবে চিন্তা-ভাবনা করে শিউর হয়ে এ কাজ করবেন। না হলে অনেক তথ্য হারাতে পারেন।

অনেকের হয়তো কিছু টিপস জানা, তবে আবার অনেকেই জানেন না এটাও ঠিক। সবাই যাতে ভালোভাবে সব বিষয় জেনে ফেসবুক ব্যবহার সুন্দর করতে পারেন তাদের জন্য এই টিউন।

Previous
Next Post »

পোস্ট সম্পর্কিত সমস্যার জন্য মন্তব্য দিন।ডাউনলোড লিঙ্ক এ সমস্যা জন্য ইনবক্স করুন Aimzworld007
ConversionConversion EmoticonEmoticon

Thanks for your comment